ফেইসবুক আন্তে চলেছে আরেক টিকটিক।যার নাম রিলস।

আসসালামুআলাইকুম!!! সুপ্রিয় পাঠক গন আশা করি আপনারা সবাই অনেক ভাল আছেন। আজ আপনাদের জন্য প্রযুক্তি বিষয়ক একটি আপডেট নিউজ দিব। আশা করি আপনারা সবাই আমার সম্পূর্ণ আর্টিকেলটা পড়বেন।

সম্প্রতি ফেসবুক অর্থাৎ মেটা(meta) টিকটক এর মত একটি নতুন প্লাটফর্ম তৈরি করতে চলেছে। এর কারণ হচ্ছে বর্তমান সময়ে টিকটক বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে এবং টিকটকের অল্টারনেটিভ হিসেবে এটিকে ব্যবহার করা যাবে, এজন্য মেটা(meta) এর ভিতরে টিকটকের মতো একটি  প্লাটফর্ম তৈরি করা হচ্ছে। বর্তমান সময়ে ইনস্টাগ্রামে টিকটকের মত এই ফাংশনটি চালু রয়েছে তবে খুব তাড়াতাড়ি ফেসবুকের মধ্যে এটা দেখা যেতে পারে বলে জানা গেছে।

মূলত টিকটক মানুষের কাছে এতটাই জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে যে, বর্তমান সময়ে টিকটকের জনপ্রিয়তার কারণে ফেসবুকের জনপ্রিয়তা দিন দিন কমছে। এইজন্য মেটা(meta) এর প্রধান মার্ক জুকারবার্গ তাদের বিজনেস গ্রো করার জন্য অর্থাৎ ইম্প্রুভ করার জন্য ফেসবুকে টিকটকের মতো এই অপশনটি চালু করা হচ্ছে।

ফেসবুকের মধ্যে টিকটকের মতো নিয়ে আসা এই নতুন সিস্টেম টির নাম হচ্ছে  "রিলস(Reels)" এটাকে এক কথায় বলা যায় ফেসবুক শর্ট ভিডিও ফিচার। এটিকে ১৫০ এর বেশি দেশে চালু করা হচ্ছে। গত ২২ শে ফেব্রুয়ারি ২০২২ অর্থাৎ মঙ্গলবার মেটার প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জুকারবার্গ এই সংবাদ জানিয়েছেন।

গেলো বেশ কয়েকদিন বর্তমান সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের জায়ান্ট মেটা(meta) টিকটকের কারণে তাদের এক-তৃতীয়াংশ মার্কেট হারিয়েছে। যেটি অনেক বড় ধরণের বিভ্রাট। এজন্যই মেটার প্রধান মার্ক জুকারবার্গ টিকটকের অল্টারনেটিভ রিলস(Reels)-কে বেশ গুরুত্ব দিচ্ছে মেটা(meta).

চলুন এবার জেনে নেই কি কি থাকবে টিকটিকের এই অল্টারনেটিভ অর্থাৎ রিলিস(Reels) ভিতরে,

রিলসে থাকবে বর্ধিত সম্পাদনা বৈশিষ্ট্য:

  • এতে থাকবে রিমিক্স যা লোকেদের একটি বিদ্যমান এবং সর্বজনীনভাবে ভাগ করা রিলের পাশে একটি রিল তৈরি করতে দেয়৷

  • প্রায় 60 সেকেন্ডের রিল

  • খসড়া রিল তৈরি করা যাবে। যা বেশ ভালো সুবিধা 

  • ভিডিও ক্লিপিং, যাতে নির্মাতাদের লাইভ এবং লং ফর্ম কন্টেন্টের জন্য বিভিন্ন ফরম্যাট পরীক্ষা করা সহজ হয়

ফেসবুকের এই শর্ট ভিডিও ফিচারে থাকবে "ক্রিয়েটিভ টুলস" যা দিয়ে বেশ আকর্ষণীয় ভাবে রিমিক্স ভিডিও তৈরী করা যাবে এবং আগের যেকোনো স্টরি থেকে ভিডিও বানানো যাবে।

তাছাড়া, ইউজাররা চাইলে লং এবং লাইভ ভিডিও তৈরি করতে পারবে নিঃসন্দেহে। সেজন্য "ভিডিও ক্লিপিংস টুল"-ও  বানানো হচ্ছে। এই বিষয়ে জানিয়েছেন মেটার প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জুকারবার্গ।

তাই মোটামুটি ভাবে বলা যাচ্ছে যে, ফেসবুকে আমরা আরেকটি নতুন টিকটক দেখতে পাচ্ছি খুব তাড়াতাড়ি। 

টিকটিক ফেসবুক রিলস এর তুলনা 

টিকটিক  2016 সালে চীনে চালু হয়েছিল কিন্তু 2017 সাল পর্যন্ত iOS বা Android এর জন্য উপলব্ধ ছিল না। 2018 সালে musical.ly-এর সাথে একীভূত হওয়ার আগ পর্যন্ত এর তেমন জনপ্রিয়তা ছিলোনা। 

টিকটিক মানুষকে ভিডিও তৈরি করতে এবং অ্যাপে শেয়ার করতে দেয়। ভিডিওটিকে আরও আকর্ষণীয়  করতে লোকেরা ফিল্টার এবং অন্যান্য ফিচার যুক্ত করে। এতে বাড়ির উন্নতি, কমেডি, ষড়যন্ত্রের তত্ত্ব এবং আরও অনেক কিছু থেকে বিভিন্ন বিষয় রয়েছে।

টিকটিক ব্যবহারকারীরা নির্মাতাদের অনুসরণ করতে পারেন, ভিডিওতে কমেন্ট করতে পারে, ভিডিওতে লাইক করতে পারে এবং ভিডিও পরিবর্তন করতে সোয়াইপ বা নিচে যেতে পারেন।

রিলস(Reels) এর মধ্যেও অনুরূপ ইন্টারফেস আছে। তাছাড়া এখানে বেশ আকর্ষণীয় ভাবে রিমিক্স ভিডিও তৈরী করা যাবে এবং আগের যেকোনো স্টরি থেকে ভিডিও বানানো যাবে। আবার , ইউজাররা চাইলে লং এবং লাইভ ভিডিও তৈরি করতে পারবে নিঃসন্দেহে। সেজন্য "ভিডিও ক্লিপিংস টুল"-ও  বানানো হচ্ছে।

এখন এই টিকটক কতটুকু জনপ্রিয় হতে পারবে, সেটা নিয়ে কিছু বলা যাচ্ছেনা। তবে আমরা জানি, ফেইসবুক আজ পর্যন্ত যতগুলি প্রজেক্ট হাতে নিয়েছে প্রত্যেকটাই অসাধারণভাবে সফলতা পেয়েছে। এর উদাহরণ হিসেবে আমরা নিঃসন্দেহে হোয়াটস্যাপ, ইনস্টাগ্রাম, মেসেঞ্জার ইত্যাদির কথা বলতে পারি।

ফেসবুক এবং ইনস্টাগ্রামের ব্যাপক প্রাপ্তি মেটাকে টিকটকের তুলনায় রিল সহ আরও বেশি লোকে পৌঁছানোর সুযোগ দিবে। প্রশ্ন হল লোকেরা কি রিলসের এই  সুবিধা নেবে, নাকি আরও পরিচিত টিকটিক -এর জন্য রিলসকে উপেক্ষা করবে।

ফেসবুকের ব্যাবহারকারি সংক্রান্ত স্ক্যু টিকটকের চেয়ে পুরানো এবং তারা কি রিল ব্যবহার করতে ইচ্ছুক বা নতুন প্রোগ্রামের জন্য তাদের বিদ্যমান টিকটোকগুলিকে রিহ্যাশ করবে? আপনার কি মনে হয়?

তাছাড়া বর্তমানে ফেইসবুক এর প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জুকারবার্গ ছাড়াও আরো অনেক ইন্টেলিজেন্ট ডেভেলপার গণ মেটার জন্য কাজ করছে। তাই আমার ধারণা তাদের এই যুগান্তকারী প্ল্যান অবশ্যই সফলতার মুখ দেখবে। আপনার কি ধারণা? অবশ্যই কমেন্টে জানানোর অনুরোধ রইলো।

আর এমন প্রযুক্তি বিষয়ক নিউ আপডেট সমূহ জানতে আমাকে ফলো করুন। ধন্যবাদ!!!

 

Comments

You must be logged in to post a comment.

লেখক সম্পর্কেঃ

Professional CPA Digital Marketer (Paid Marketing Masterclass)