ভালো ঘুম না হওয়ার কারন ও এর সমাধান

অনেকে আছে যারা নিদ্রাহীনতায় ভোগে। এর ফলে দিনের বেলায় তাদের কাজে মনোযোগ দিতে কষ্ট হয়, সারাদিন মেজাজ খিটখিটে হয়ে থাকে। এই সমস্যার কারণ এবং এর সমাধান নিয়ে আলোচনা করা হলোঃ

১.কিছু কিছু খাবার যেগুলো আমাদের ঘুম আসতে দেয় না বা ঘুম আসলেও ঘুম গভীর হতে দেয় না। যেমনঃ চা-কফি, এনার্জি ডিংক এবং কোমল পানীয়। কারণ এগুলোতে থাকে ক্যাফিন। যেটা আমাদের ঘুম আসতে বাধা দেয়। তাই এই ধরনের খাবার এড়িয়ে চলতে হবে। বিশেষ করে ঘুমের পাঁচ থেকে ছয় ঘন্টা আগে এগুলো খাওয়া যাবেনা। 

২.কুসুম গরম দুধ পান করা। কারণ দুধে আছে ভিটামিন ও মিনারেল যা আমাদের মানসিক চাপমুক্ত করতে সহায়তা করে এবং মস্তিস্ককে শিথিল করে। গবেষণায় দেখা গেছে এটা ভালো এবং লম্বা ঘুম হতে সহায়তা করে। 

৩. সারাদিন আমরা নানা ধরনের ব্যস্ততার মধ্যে সময় কাটাই। এই ব্যস্ততা এবং দুশ্চিন্তা থেকে নিজেকে দূরে সরিয়ে আনতে অন্তত ঘুমানোর এক ঘণ্টা আগে রিলাক্স করতে হবে। এই এক ঘন্টায় আপনি বই পড়তে পারেন,  ডায়রি লিখতে পারেন, গরম পানি দিয়ে গোসল করতে পারেন, মনের প্রশান্তি আনে এমন শ্রুতি মধুর কিছু শুনতে পারেন, যেমনঃ ধর্মগ্রন্থ, কবিতা আবৃত্তি, গান যেটা আপনার ভালো লাগে। 

৪.যন্ত্রের ব্যবহার থেকে দূরে থাকবেন। যেমনঃ টিভি দেখা, কম্পিউটার বা মোবাইল ফোন ব্যবহার করা। কারণ এই যন্ত্রগুলোর স্কিনের উজ্জ্বল আলো মস্তিষ্ককে সজাগ করে তোলে। ফলে ঘুম আসতে দেরি হয়। তাই অন্তত ঘুমানোর এক থেকে দুই ঘণ্টা আগে এ ধরনের যন্ত্রের ব্যবহার থেকে দূরে থাকবেন। 

৫.ঘুমানোর আগে অনেক বেশি খাবার খেলে অনেকের ঘুম ভালো হয় না। যাদের রাতে ঘুমানোর অসুবিধা আছে তারা রাতে ঘুমানোর অন্তত দুই থেকে তিন ঘণ্টা আগে রাতের খাবার খেয়ে নিবেন।

৬. ধূমপান করা থেকে বিরত থাকুন। কারণ এতে আছে নিকোটিন যা একটি উত্তেজক পদার্থ। এটা ভালো ঘুমে ব্যাঘাত ঘটায়। একদম সম্পূর্ণভাবে পরিহার করা সম্ভব না হলে অন্তত ঘুমানোর এক ঘণ্টা আগে ধূমপান থেকে বিরত থাকবেন। 

৭. আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশনা হলো নিয়মিত ব্যায়াম করা। ব্যায়াম আমাদের শরীরকে সচল এবং সতেজ রাখে। আর শরীর সচল থাকলে রাতে ঘুম ভালো হয় তবে ঘুমানোর দুই থেকে তিন ঘণ্টা আগে ব্যায়াম পরিহার করুন। 

৮. নিয়মিত এবং পরিমিত ঘুমের অভ্যাস করা। শরীরকে প্রতিদিন একই সময়ে ঘুমাতে অভ্যস্ত করার জন্য নির্দিষ্ট সময়ে ঘুমানো এবং ঘুম থেকে জেগে ওঠা প্রয়োজন। এতে করে আপনার শরীর ওই নির্দিষ্ট সময়ে একটা ভালো ঘুম দিতে অভ্যস্ত হয়ে পড়বে। 

আশা করি যাদের ঘুম এর সমস্যা আছে তারা উপরিউক্ত পয়েন্ট গুলো ফলো করলে ঘুম এর সমস্যা দূর করতে পারবেন। 

আমার এই আর্টিকেল টি আপনাদের ভালো লাগলে বেশি বেশি সেয়ার করবেন।

Comments
Jannat Jannat - মে ১, ২০২২, ১২:০৮ PM - Add Reply

Thanks

You must be logged in to post a comment.
Jannat Jannat - মে ১, ২০২২, ১২:০৮ PM - Add Reply

Nice

You must be logged in to post a comment.

You must be logged in to post a comment.

লেখক সম্পর্কেঃ

I am article Writer